Wednesday, March 13, 2019
Home > আন্তর্জাতিক > রোহিঙ্গাদের ফেরাতে মিয়ানমারের প্রস্তুতি দেখে এসেছেন সচিব শহীদুল

রোহিঙ্গাদের ফেরাতে মিয়ানমারের প্রস্তুতি দেখে এসেছেন সচিব শহীদুল

সেনা অভিযানের মুখে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের ফেরাতে অবশেষে মিয়ানমার প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র সচিব এম শহীদুল হক। তবে এই প্রত্যাবাসন কবে শুরু করা যাবে, সে বিষয়ে আগের মতোই অনিশ্চয়তার কথা জানিয়েছেন তিনি।

সচিব বলেন, ‘আমরা মিয়ানমার সফর করে দেখে এসেছি। রাখাইনে তারা রোহিঙ্গাদের জন্য অবকাঠামো তৈরি করছে।’

সোমবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে এক অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার আগে মিয়ানমার সফর সম্পর্কে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন পররাষ্ট্র সচিব।

শহীদুল বলেন, ‘আমরা রাখাইনে রোহিঙ্গাদের জন্য তৈরি করা অবকাঠামো দেখেছি। বেশ কিছু অবকাঠামো ভারত সরকারের সহায়তায় সেখানে তৈরি হয়েছে। সেখানের প্রস্তুতির অগ্রগতি হয়েছে।’

অনেক আগেই রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু হওয়ার কথা থাকলেও সেটা বিভিন্ন অজুহাতে বারবার পেছানো হচ্ছে। রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন আদৌ হবে কী এমন এক প্রশ্ন রাখেন সাংবাদিকরা।

 

জবাবে সচিব বলেন, ‘রোহিঙ্গারা কবে নাগাদ ফিরতে পারবে, সে বিষয়ে কোনো সময়সীমা আমরা এখনই বলতে পারছি না। তবে উভয় পক্ষই এ নিয়ে কাজ করছে। আমরা রোহিঙ্গাদের ফেরানোর বিষয়ে আশাবাদী।’

৮০ দশক থেকেই নানা সময় মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের রোহিঙ্গা মুসলমানদের বিরুদ্ধে সেনা অভিযান চালিয়ে আসছে মিয়ানমার। আর প্রাণ বাঁচাতে বাংলাদেশের দিকে ছুটে এসেছে এই জনগোষ্ঠী। তবে গত বছর আগস্টের অভিযানের পর সবচেয়ে বেশি অনুপ্রবেশের ঘটনা ঘটে।

এখন বাংলাদেশে অবস্থানকারী রোহিঙ্গাদের সংখ্যা ১১ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। আর এদেরকে ফিরিয়ে দিতে মিয়ানমারের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। সেই সঙ্গে আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও কাজ করছে সরকার।

এই প্রত্যাবাসন নিয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে একটি সমঝোতা স্মারক এবং একটি চুক্তিও করেছে মিয়ানমার। কিন্তু বারবার সময় নিয়েও প্রত্যাবাসন শুরু করতে চাচ্ছে না দেশটি। আর মিয়ানমারের এই টালবাহানা নিয়ে একাধিকবার বিরক্তি প্রকাশ করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সম্প্রতি জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোরিও গুতেরেসও রোহিঙ্গাদের দুর্দশা নিজ চোখে দেখে গেছেন। এ বিষয়ে মিয়ানমারকে চাপ  দেয়ার কথা বলে গেছেন গুতেরেসও।

এর মধ্যে রোহিঙ্গাদের রাখাইনে ফিরে যাওয়ার মতো সহায়ক পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে কি না তা দেখতে গত ৯ আগস্ট মিয়ানমার যায় বাংলাদেশের একটি প্রতিনিধি দল। তারা চার দিন সেখানে অবস্থান করে। এই দলে ছিলেন পররাষ্ট্র সচিবও।

%d bloggers like this: