Sunday, October 14, 2018
Home > অর্থনীতি > সুদহার কমিয়ে সংযত মুদ্রানীতি ঘোষণা

সুদহার কমিয়ে সংযত মুদ্রানীতি ঘোষণা

চলতি পঞ্জিকা বছরের (জানুয়ারি-জুন) প্রান্তিকের জন্য মুদ্রানীতি ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। মুদ্রানীতিতে বিনিয়োগকারীদের উৎসাহ দিতে ব্যাংকিং খাতে সুদহার কমানোর কথা বলা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের জাহাঙ্গীর আলম কনফারেন্স হলে নতুন মুদ্রানীতি ঘোষণা করেন ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমান।

নতুন মুদ্রানীতিতে সুদহার ০.৫০ শতাংশ কমিয়ে রেপোতে ৬.৭৫ এবং রিভার্স রেপোতে ৪.৭৫ শতাংশ নির্ধারণ করা হয়েছে। মূল্যস্ফীতির লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৬.০১ শতাংশ। এছাড়া আগামী জুন নাগাদ বেসরকারি খাতে ঋণ বাড়ানোর লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ১৪.৮০ শতাংশ। বেসরকারি খাতের রপ্তানিমুখী শিল্পের জন্য বৈদেশিক মুদ্রায় গঠিত ৫০ কোটি ডলারের দুটি তহবিল থেকে ঋণ নেওয়ার সুযোগ রয়েছে।

দ্রানীতি ঘোষণাকালে ড. আতিউর রহমান বলেন, ‘বর্তমানে খাদ্য ও জ্বালানি বহির্ভূত কোর মূল্যস্ফীতি দাঁড়িয়েছে ৬ দশমিক ৮ শতাংশ। যা সার্বিক মূল্যস্ফীতিকে ঊর্ধ্বমুখী চাপে রেখেছে। তাই সতর্ক ও সংযত মুদ্রানীতি প্রণয়ন করা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘মূল্যস্ফীতির ঊর্ধ্বমুখী চাপের কারণে গতবারের চেয়ে ব্যাপক ও বেসরকারি খাতের ঋণ যোগানের প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা কমিয়ে যথাক্রমে ১৫ শতাংশ এবং ১৪ দশমিক ৮ শতাংশ নির্ধারণ করা হয়েছে। বাজারের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে রেপো ও রিভার্স রেপো হার ৫০ বেসিস পয়েন্ট কমিয়ে যথাক্রমে ৬.৭৫ শতাংশ এবং ৪.৭৫ শতাংশ করা হয়েছে।’

এই কমতি নীতি সুদহার, যথাযথ ঋণ যোগান এবং ব্যাপক মুদ্রা সরবরাহের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণে আমাদের এই পলিসি রিক্যালিব্রেশন (নীতি পুনঃসমন্বয়) মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে একদিকে কোনো বিঘ্ন ঘটাবে না, অন্যদিকে কাঙ্ক্ষিত প্রবৃদ্ধি অর্জনের জন্য যথেষ্ট হবে বলে আমরা মনে করি। বরাবরের মতো এবারেও আমরা বর্তমানের বাস্তবতা ও ভবিষ্যতের সম্ভাবনা বিবেচনায় আমাদের দৃষ্টিভঙ্গি সমন্বয় করতে সদা প্রস্তুত রয়েছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: