Monday, October 22, 2018
Home > রাজনীতি > ৫ জানুয়ারি গণতন্ত্র হত্যা দিবস পালনের ডাক বিএনপির

৫ জানুয়ারি গণতন্ত্র হত্যা দিবস পালনের ডাক বিএনপির

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দুই বছর পূর্তির দিন ৫ জানুয়ারি সারাদেশে সমাবেশের ডাক দিয়েছে বিএনপি। দিনটিকে “গণতন্ত্র হত্যা দিবস” হিসেবেও পালন করবে তারা।

সকালে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে যৌথ সভা শেষে দলটির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ কথা জানান। তিনি জানান, ঢাকার পাশাপাশি দেশের প্রতিটি জেলা সদরে সমাবেশ করা হবে। ঢাকার সমাবেশটি হবে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে।

মির্জা ফখরুল বলেন, ঢাকায় সমাবেশ করার জন্য প্রশাসনের কাছে অনুমতি চাওয়া হয়েছে। গতবার প্রশাসন সমাবেশের অনুমতি না দিলেও এবার তাদেরকে ফেরাবে না বলেই আশা ফখরুলের।

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের এক বছর পূর্তিতে ২০১৫ সালের ৫ জানুয়ারি ঢাকায় সমাবেশ করতে না পেরে দেশজুড়ে লাগাতার অবরোধের ডাক দিয়েছিল বিএনপি। কিন্তু কর্মসূচি চালিয়ে নিতে ব্যর্থ হয়ে আন্দোলনে পিছু হটে বিএনপি। আর সরকারের দুই বছর পূর্তিতে বড় ধরনের আন্দোলনের কোন কর্মসূচি নেয়নি দলটি।

মির্জা ফখরুল বলেন, “সরকার বিরোধীদলীয় নেতাকর্মীদের উপর দমন পীড়ন চালাচ্ছে। সুষ্ঠু গণতান্ত্রিক পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে সরকারকে এমন মনোভাব থেকে বেরিয়ে আসতে হবে”।

পৌর নির্বাচন পরবর্তী নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তারের নিন্দা জানিয়ে ফখরুল বলেন, ‘এমন দমন-পীড়ন বেশ কয়েক বছর ধরে চলছে। সরকারকে এ থেকে বের হতে হবে। সুষ্ঠু গণতান্ত্রিক পরিবেশ ফিরিয়ে আনার জন্য বিরোধী দলের সঙ্গে আলোচনা করতে হবে। অন্যথায় উগ্রতা ও জঙ্গিবাদের যে ভয়াবহ আশঙ্কা করছে দেশের মানুষ তা দমন করা কঠিন হয়ে পড়বে। তাই সরকারকে বলবো, অবিলম্বে দেশ ও জনগণের স্বার্থে বিরোধী দলের সঙ্গে আলোচনা করে গণতান্ত্রিক পরিবেশ ফিরিয়ে আনুন।’

প্রয়াত রাষ্ট্রপতি ও বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ৮০তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে দলের পক্ষ থেকে বেশ কিছু কর্মসূচি ঘোষণা করেন ফখরুল।

তিনি জানান, জন্মদিন উপলক্ষ্যে ১৯ জানুয়ারি সকাল ১০টায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া দলের শীর্ষ নেতাদের নিয়ে শেরে বাংলা নগরে অবস্থিত প্রতিষ্ঠাতার সমাধিতে শ্রদ্ধা জানাবেন। একইদিন বিকালে রাজধানীতে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে।

ফখরুল আরো জানান, দিবসটি উপলক্ষ্যে ওইদিন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন এবং সারাদেশের দলীয় কার্যালয় দলের পতাকা উত্তোলন করা হবে। সারাদেশে যথাযোগ্য মর্যাদায় প্রতিষ্ঠাতার জন্মবার্ষিকী পালন করা হবে।

এ ছাড়াও জাতীয় দৈনিকে দিবসটি উপলক্ষ্যে বিশেষ ক্রোড়পত্র ও পোস্টার করা হবে বলেও জানান ফখরুল।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা শামসুজ্জামান দুদু, যুগ্ম মহাসচিব মিজানুর রহমান মিনু, রুহুল কবির রিজভী, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, স্ব-নির্ভর বিষয়ক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলুসহ অঙ্গ সংগঠনের শীর্ষ নেতারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: